প্রোগ্রামিং গাইডলাইনঃ যে বইগুলো দিয়ে শুরু করতে পারেন - তামিম শাহরিয়ার সুবিন | Buy Programming Guideline: Je Boigulo Diye Shoru Korte Paren (4ti) - Tamim Shahriar Subeen online | Rokomari.com, Popular Online Bookstore in Bangladesh

Product Specification

Title প্রোগ্রামিং গাইডলাইনঃ যে বইগুলো দিয়ে শুরু করতে পারেন
Author তামিম শাহরিয়ার সুবিন
Publisher রকমারি কালেকশন
Edition 1st Published, 2018
Number of Pages 691
Country বাংলাদেশ
Language বাংলা

Product Summary

"প্রোগ্রামিং ক্যারিয়ার গাইড লাইন: এক ডজন প্রোগ্রামারের কথা" বইয়ের কথাঃ কম্পিউটার প্রোগ্রামিংকে ক্যারিয়ার হিসেবে নিয়ে সাফল্য অর্জন করেছেন এমন বারোজন বাংলাদেশি প্রকৌশলির সাক্ষাৎকার সংকলন করে প্রকাশ করা হয়েছে বইটি। এই বইটি কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ে ক্যারিয়ার করতে আগ্রহী তরুন প্রজন্মকে উৎসাহ ও উদ্দীপনা যোগানোর পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের ভুল ধারনা ভাঙ্গাতে সাহায্য করবে। বইটির সবগুলো সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেছেন তামিম শাহ‍রিয়ার সুবিন।
This book is a collection of interviews of twelve successful Bangladeshi engineers, who have built their career on computer programming. This book help youngster who want to take computer programming as a career by guiding them and debunking common misconceptions. All the interviews were taken by Tamim Shahriar Subeen
01. মারুফ মনিরুজ্জামান, সফটওয়্যার প্রকৌশলী, মাইক্রোসফট
02. অনুপম শ্যাম, এভারনোট (যুক্তরাষ্ট্র)-এ কাজ করছেন, এর আগে বিশ্বখ্যাত গেম নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডিজনীতে কাজ করেছেন।
03. মোজাম্মেল হক, ডেভেলাপমেন্ট ম্যানেজার, ভ্যানটেজ ল্যাবস।
04. আল-মামুন সোহাগ, কানাডায় অবস্থিত রেটরড নামক গেম নির্মাতা প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন।
05. সবুজ কুন্ডু, সিইও, কোডবক্সার।
06. সোহেল তাসলিম, ইফিউশন, জাপান।
07. রুহুল আমিন (সজীব), দলনেতা, পিপীলিকা প্রজেক্ট, সিএসই-সাস্টের শিক্ষক, (বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে পিএইচডি করছেন)।
08. নাজমুজ সালেহীন (সমিত), ইঞ্জিনিয়ারিং ম্যানেজার, পেপাল।
09. গোলাম কাওসার (বিলাশ), মাইক্রোসফট ও গোল্ডম্যান স্যাক্সে কাজ করে এখন একটি সার্টআপে কাজ করছেন।
10. আরিফুজ্জামান আরিফ, সফটওয়্যার প্রকৌশলী, গুগল।
11. শাহরিয়ার মঞ্জুর, এসিএম আইসিপিসি ওয়ারল্ড ফাইনালসের বিচারক এবং সাউদ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক।
12. মোজাহেদুল হক আবুল হাসানাত, সিটিও, থেরাপ সার্ভিসেস।

'হাবলুদের জন্য প্রোগ্রামিং' বইটি কাদের জন্য
যারা ভয়ের কারণে প্রোগ্রামিং শিখা শুরু করতেই পারে না। প্রোগ্রামিং কঠিন; সায়ন্সের স্টুডেন্ট বা ম্যাথে ভালো না হলে প্রোগ্রামিং শিখতে পারবে না মনে করে মুখ লুকিয়ে রাখে। তাদের জন্য গল্প আর মজার ছলে, চায়ের আড্ডার মাধ্যমে প্রোগ্রামিংয়ের বেসিক কনসেপ্টগুলো উপস্থাপন করা হয়েছে। তাছাড়া স্মার্টফোনে কোনকিছু ইনস্টল না করেই প্রোগ্রামিং প্রাকটিস করতে পারবে। আর যারা প্রোগ্রামিং শিখে কিছুটা এগিয়ে আছে, তারাও বইটি পড়ে প্রোগ্রামিংয়ের বেসিক কনসেপ্টগুলো ফকফকা করে নিতে পারবে।

বইয়ের ভূমিকা
যারা পরীক্ষায় ভালো নম্বর পায় না, যাদেরকে ভালো স্টুডেন্ট হিসেবে গণ্য করা হয় না, তাদেরকে পরোক্ষভাবে গাধা, বলদ বা হাবলু হিসেবে সম্বোধন করা হয়। এসব হাবলুরা পড়ালেখার মাঠে, চাকরির হাটে কিংবা প্রেমের ঘাটে, অনেকটাই পিছিয়ে থাকে।

হাবলুরা পড়ালেখায় হাবলু হলেও, দুনিয়ার সবকিছুতে হাবলু না। ক্লাস ফাঁকি দেয়ার ফন্দি, শর্টকাটে পাশ করার পদ্ধতি, ফ্রেন্ডের পকেট থেকে টাকা খসানোর সিস্টেম, হাবলুদের চাইতে ভালো কেউ জানে না। তাদের পড়ালেখা মনে না থাকলেও, টিভি সিরিয়ালের কাহিনী, সিনেমার ডায়ালগ, ইন্টারনেটের চিপা-চাপার খবর ঠিকই মনে থাকে। এমনকি এসব জিনিসে চাল্লুদেরকেও পিছনে ফেলে দেয় তারা। সেজন্যই হাবলুদের মতো করে, চায়ের দোকানের আড্ডার ভাষা দিয়ে, প্রোগ্রামিংকে উপস্থাপন করা হয়েছে। যাতে হাবলুরা হাবলু স্টাইলে প্রোগ্রামিং-এর মজা পেয়ে এগিয়ে যেতে পারে।

হাবলুগিরি দিয়েই চাল্লুদের পিছনে ফেলে দেয়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে-

ঝংকার মাহবুব, হাবলু দ্য গ্রেট
www.jhankarmahbub.com

সূচি
* প্রোগ্রাম খায়, পরে না মাথায় দেয়?
* variable বুঝলে, হবে না পয়সা ব্যয়
* প্রোগ্রামিং প্র্যাকটিস করে রাত পোহালে
* string এর তালে নাচবে গরু গোয়ালে

* নানীর if-else বুঝে লাফায় নানা
* বিস্কুটের array খায় বিড়ালছানা
* while লুপকে করলে মালিশ
* for লুপ ডাকবে সালিশ

* প্রেমের প্রপোজ করলে গোটা দশ হালি
* function বুঝবে না- কোনটা বউ কোনটা শালী
* দ্বিগুণ টাকা ধার করে পালালে
* প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ খুঁজবে মামা শিয়ালে
* হাসবে হাবলু বিজয় মিছিলে

ঝংকার মাহবুবের বইয়ের পাণ্ডুলিপি পড়ে আমি খুবই অবাক এবং আশান্বিত হয়েছি যে আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম নানা বিষয়ে যথেষ্ট দক্ষতা অর্জন করেই বড় হচ্ছে। বইয়ের নামকরণ থেকে শুরু করে ব্যবহৃত ভাষা এবং ঢং সবই ভিন্ন ও আকর্ষনীয়। বইয়ের নাম ‘হাবলুদের জন্য প্রোগ্রামিং’ হলেও লেখক সন্দেহাতীতভাবে বিশ্বাস করেন যে আমাদের যেকোনো তরুনের জন্য প্রোগ্রামিং শেখা তেমন কোনো কঠিন কাজ নয়। প্রতিটি অধ্যায়ই লেখকের স্বতন্ত্র ভাষায়, ঢংয়ে খুবই হাল্কা মেজাজে উপভোগ্য কৌতুকের সঙ্গে উপস্থাপিত হয়েছে যাতে করে কোন 'হাবলু'ই টের না পায় যে সে খুবই জটিল কিছু শিখতে যাচ্ছে। অনুশীলন করার জন্য বইতেই পর্যাপ্ত ফাঁকা জায়গা দেয়া আছে।

আমি আশা করি আমাদের ছেলেমেয়েরা এই বইটি পড়ে যেমন প্রোগ্রামিংয়ের ভয় জয় করবে, ঠিক একইভাবে প্রোগ্রামিংয়ের বেশ কিছু ধারনাও আত্মস্থ করতে পারবে। আমি ঝংকার মাহবুবকে বইটি লেখার জন্য অভিনন্দন জানাই এবং তাঁর বইয়ের পাঠকদের মেধার অনুশীলনের মাধ্যমে শ্রেয়তর মস্তিষ্কের অধিকারী হয়ে বাংলাদেশকে সমৃদ্ধ করার আমন্ত্রণ রইল।

ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ অধ্যাপক, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ,
বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)
কম্পিউটার প্রোগ্রামিং-প্রথম খণ্ড বইটির ভূমিকা কম্পিউটারের জন্ম হয়েছিল কম্পিউট বা হিসাব করার জন্য। এখন কম্পিউটারে মানুষ গান শোনে, সিনেমা দেখে, চিঠি লেখে, ফেসবুক করে, ইন্টারনেট ঘাঁটাঘাঁটি করে, এমনকি চুরিচামারি পর্যন্ত করে কিন্তু হিসাব করে না! অথচ কম্পিউটারে কম্পিউট করার মতো আনন্দ আর কিছুতে নয়, সেটি করার জন্য যেটি জানা দরকার, সেটি হচ্ছে একটুখানি প্রোগ্রামিং।
ইউনিভার্সিটিতে বা বড়ো বড়ো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রোগ্রামিং শেখানো হয় কিন্তু স্কুল-কলেজের ছেলেমেয়েরাও যে খুব সহজে প্রোগ্রামিং করতে পারে, সেটি অনেকেই জানে না। আমি অনেক দিন থেকেই ভাবছিলাম, স্কুলের ছেলেমেয়েদের জন্য এরকম একটি বই লিখি; কিন্তু কিছুতেই সময় করে উঠতে পারছিলাম না।
ঠিক এরকম সময় আমার ছাত্র সুবিনের এই পাণ্ডুলিপিটি আমার চোখে পড়েছে। আমি অবাক হয়ে লক্ষ করলাম, আমি যে জিনিসটি করতে চেয়েছিলাম, সুবিন ঠিক সেটিই করে রেখেছে! স্কুল-কলেজের ছেলেমেয়েদের জন্য একটি প্রোগ্রামিংয়ের বই লিখেছে, খুব সহজ ভাষায়, খুব সুন্দর করে গুছিয়ে।
আমি তার এই চমৎকার বইটির সাফল্য কামনা করি। ছেলেমেয়েরা গান শোনা, সিনেমা দেখা, চিঠি লেখা, ফেসবুক করা, ইন্টারনেট ঘাঁটাঘাঁটি করার পাশাপাশি আবার কম্পিউটারের মূল জায়গায় ফিরে আসুক – সেই প্রত্যাশায় থাকলাম।
মুহম্মদ জাফর ইকবাল,
অধ্যাপক, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
লেখক ও শিক্ষাবিদ
সূচীপত্র ভূমিকা
লেখক পরিচিতি
লেখকের কথা
বইটি সম্পর্কে মতামত ও রিভিউ
অধ্যায় শূন্য : শুরুর আগে
অধ্যায় এক : প্রথম প্রোগ্রাম
অধ্যায় দুই : ডেটা টাইপ, ইনপুট ও আউটপুট
অধ্যায় তিন : কন্ডিশনাল লজিক
অধ্যায় চার : লুপ (Loop)
অধ্যায় পাঁচ : একটুখানি গণিত
অধ্যায় ছয় : অ্যারে
অধ্যায় সাত : ফাংশন
অধ্যায় আট : বাইনারি সার্চ
অধ্যায় নয় : স্ট্রিং (string)
অধ্যায় দশ : মৌলিক সংখ্যা
অধ্যায় এগারো : আবারও অ্যারে
অধ্যায় বারো : বাইনারি সংখ্যা
অধ্যায় তেরো : কিছু প্রোগ্রামিং-সমস্যা
অধ্যায় চোদ্দো : শেষের শুরু
পরিশিষ্ট শূন্য : অ্যালগরিদম ও ফ্লোচার্ট
পরিশিষ্ট এক : প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা
পরিশিষ্ট দুই : প্রোগ্রামিং ক্যারিয়ার
পরিশিষ্ট তিন : বই ও ওয়েবসাইটের তালিকা

লেখক পরিচিতি
মো: মাহবুবুল হাসান (শান্ত)-এর জন্ম ১৯৮৬ সালে। তিনি রাজশাহীর অগ্রণী বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও নিউ গভঃ ডিগ্রী কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন। ২০০৩ সালের প্রথম জাতীয় গণিত অলিম্পিয়াডে একশোতে একশো পেয়ে সেকেন্ডারি ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন হন তিনি। ২০০৫ সালের বাংলাদেশ হতে আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডগামী প্রথম দলের সদস্য ছিলেন। এছাড়াও ২০০৫ সালের আন্তর্জাতিক ইনফরমেটিক্স অলিম্পিয়াডগামী প্রথম দলের সদস্যও ছিলেন, যদিও ভিসা জটিলতার কারণে সেবার বাংলাদেশের অংশগ্রহণ করা হয়ে ওঠে না। কলেজ পড়ুয়াদের আইওআইগামী সেই দলটি ২০০৫ সালের ঢাকা সাইটের আইসিপিসিতে বাংলাদেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের দলকে হারিয়ে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন, প্রথম হয় চীনের ফুদান বিশ্ববিদ্যালয়। বুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে পড়াকালীন সময়ে হাতে গোনা তিন চারটি কনটেস্ট বাদে বাকি প্রায় ত্রিশটির মতো কনটেস্টে তাদের দল চ্যাম্পিয়ন হয়। ২০০৮ ও ২০০৯ সালের এসিএম আইসিপিসি ওয়ার্ল্ড ফাইনালস্-এ তাদের দল অংশগ্রহণ করে যথাক্রমে ৩১তম এবং ৩৪তম স্থান অর্জন করে। এছাড়াও প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে তিনি টপকোডার এবং কোডফোর্সেস উভয়ের রেড কোডার হন। বুয়েটের পড়াশুনার পাট চুকিয়ে আড়াই বছর বুয়েটে শিক্ষকতা করেন। শিক্ষকতার পাশাপাশি এসময়ে তিনি বুয়েট এবং আইওআই এর ছেলেমেয়েদের প্রোগ্রামিং এর প্রশিক্ষণ দেন। ২০১১ ও ২০১৩ তে আইওআই দলের দলনেতা হিসাবে ছিলেন তিনি। বর্তমানে তিনি গুগলের সুইজারল্যান্ড অফিসে কর্মরত আছেন।

"প্রোগ্রামিং কনটেস্ট ডেটা স্ট্রাকচার ও অ্যালগরিদম" বইটির ভূমিকা মোঃ মাহবুবুল হাসান শান্ত এর বইয়ের ভূমিকা লেখার ভার যখন আমাকে দেওয়া হলো তখন আমি বেশ অবাক হই, কিন্তু বইয়ের কনটেন্ট এর ব্যাপ্তি দেখে আরো অনেক বেশি অবাক হই। শান্তর বইয়ে UVa আর্কাইভ এর অনেক প্রবলেম ব্যবহার হয়েছে দেখে ভালো লাগলো, কারণ এটা হয়তো UVa সাইটের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধিতে বড় ভূমিকা রাখবে। সেজন্য বইটির ইংরেজি অনুবাদেরও অপেক্ষায় থাকলাম।
তরুণ প্রজন্মের মধ্যে আমার দেখা সর্বশ্রেষ্ঠ শিক্ষক মনে হয় মনিরুল হাসান (তমাল)। কিন্তু আরেকটু তরুণ প্রজন্মের মধ্যে যদি খুঁজে দেখি তাহলে দুটো নামই মাথায়ে আসে- মোহাম্মদ মাহমুদুর রহমান এবং মোঃ মাহবুবুল হাসান শান্ত। মোটামুটি ভালো শিক্ষক হলেই যে সবসময় ভালো লেখক হয়না সেটা নিজেকে দিয়েই বুঝি কিন্তু শান্ত তার বুঝানোর ক্ষমতাকে বই এর মধ্যে আনতে পেরেছে ভালোভাবেই তাই এই বইটি তরুণ প্রজন্মের জন্য অনেক উপকারী হবে সন্দেহ নেই। আজকে কেবলই মনে হচ্ছে কেন আমার বয়স আরো বিশ বছর কম হলো না, তাহলে এই বই দেখে আরো ভালোভাবে সবকিছু অনেক কম বয়সে শিখে ফেলতে পারতাম।
শান্তর প্রোগ্রামিং কনটেস্ট ক্যারিয়ার অনেক দীর্ঘ। তবে তাকে প্রথম ভালো ভাবে চিনি যখন "Dhaka Regional ২০০৫" এ শান্ত ও নাফি এর IOI গামী দল বাংলাদেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়কে পেছনে ফেলে দ্বিতীয় স্থান দখল করে। "Lattice triangle" গণনার একটি সমস্যা সমাধান করে তারা সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল। সৌভাগ্যক্রমে সেই প্রবলেমের স্রষ্টা ছিলাম আমি। ভিসা জটিলতার কারণে তাদের IOI এ অংশগ্রহন করা হয় নাই, নাহলে বাংলাদেশের IOI পদক অনেক আগেই আসতে পারত। শান্ত সম্ভবত এখনো নানান কনটেস্টে অংশগ্রহন করে, তাই তার চেয়ে দীর্ঘ কনটেস্ট ক্যারিয়ার খুব কম লোকেরই আছে। তার উপর শান্তর রয়েছে সমস্যার সমাধান করার সীমাহীন উৎসাহ ও ধৈর্য। জনশ্রুতি রয়েছে যে শান্ত তার বিয়ের দিনও বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করেছে। কাজেই এত দীর্ঘ ক্যারিয়ার ও সময়ে শান্ত কী পরিমান সমস্যা সমাধান করেছে তা আন্দাজ করাও অনেকের পক্ষে কঠিন হবে। এই বইয়ে তাই নানা ধরনের সমস্যা সমাধান এর কথা উঠে এসেছে। বাংলা ভাষায় এমন বই আগে প্রকাশিত হয়নি এমনকি ইংরেজিতে অনুদিত হলেও এই বই যথেষ্ট সমাদৃত হবে বলে আমার বিশ্বাস।
সাধারণত দেশের বাইরে গিয়ে লোকজন প্রোগ্রামিং কনটেস্ট এবং প্রবলেমসেটিং কে ভুলে যায়, কিন্তু শান্ত এই দিক থেকে ব্যতিক্রম। এই বইয়ের পাঠক সংখ্যা কয়েক মিলিয়ন হলেই সেই ব্যতিক্রমী প্রচেষ্টা সফল হবে। সেইসব মিলিয়ন প্রোগ্রামার বাংলাদেশকে অনেক সম্মানিত করবে। মনে রাখতে হবে যে পোশাক ও শ্রমিক রফতানি করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব হলেও সম্মনের জন্য প্রয়োজন একটু সৃজনশীল কিছু। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI) ও রোবটের উত্থানের যুগে, প্রোগ্রামিং ছাড়া অন্য কিছুতে মানুষের প্রয়োজন থাকবে কিনা সেটাও ভাবা দরকার :)।
সূচীপত্র অধ্যায় ১ - প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় হাতেখড়ি
১.১ শুরুর কথা
১.২ প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা কী?
১.৩ কেন করব?
১.৪ কীভাবে শুরু করব?
১.৫ কী কী জানতে হবে?
অধ্যায় ২ - C ঝালাই
২.১ একটি ছোট প্রোগ্রাম এবং ইনপুট আউটপুট
২.২ ডেটা টাইপ এবং math.h হেডার ফাইল
২.৩ if - else if - else
২.৪ লুপ (Loop)
২.৫ অ্যারে (Array) ও স্ট্রিং (String)
২.৬ টাইম কমপ্লেক্সিটি (Time Complexity) এবং মেমোরী কমপ্লেক্সিটি (Memory Complexity)
২.৭ ফাংশন এবং রিকার্শন (Recursion)
২.৮ ফাইল (File) ও স্ট্রাকচার (Structure)
২.৯ বিটওয়াইজ অপারেশন (bitwise operation)
অধ্যায় ৩ - গণিত
৩.১ সংখ্যাতত্ত্ব (Number Theory)
৩.১.১ মৌলিক সংখ্যা (Prime Number)
৩.১.২ একটি সংখ্যার গুণনীয়কসমূহ
৩.১.৩ গ.সা.গু. (GCD) ও ল.সা.গু. (LCM)
৩.১.৪ অয়লার এর টোশেন্ট ফাংশন (Euler's Totient Function)
৩.১.৫ BigMod
৩.১.৬ মডুলার ইনভার্স (Modular Inverse)
৩.১.৭ Extended GCD
৩.২ কম্বিনেটরিক্স (Combinatorics)
৩.২.১ ফ্যাক্টোরিয়ালের পেছনের 0
৩.২.২ ফ্যাক্টোরিয়ালের অঙ্ক (Digit) সংখ্যা
৩.২.৩ সমাবেশ (Combination)
৩.২.৪ কিছু বিশেষ সংখ্যা
ডিরেঞ্জমেন্ট সংখ্যা (Derangement Number)
কাটালান সংখ্যা (Catalan Number)
Stirling Number of Second Kind
Stirling Number of First Kind
৩.২.৫ ফিবোনাচি সংখ্যা (Fibonacci Number)
৩.২.৬ ইনক্লুশন এক্সক্লুশন নীতি (Inclusion Exclusion Principle)
৩.৩ সম্ভাব্যতা (Probability) ও এক্সপেক্টেশন (Expectation)
৩.৩.১ সম্ভাব্যতা (Probability)
৩.৩.২ এক্সপেক্টেশন (Expectation)
৩.৪ বিবিধ
৩.৪.১ ভিত্তি পরিবর্তন (Base Conversion)
৩.৪.২ বিগ ইন্টিজার (Big Integer)
৩.৪.৩ চক্র বা সাইকেল (Cycle) নির্ণয়ের অ্যালগরিদম
৩.৪.৪ গাউসের এলিমিনেশন (Gaussian elimination)
৩.৫ প্রোগ্রামিং সমস্যা
৩.৫.১ অনুশীলনী
অধ্যায় ৪ - সর্টিং (Sorting) ও সার্চিং (Searching)
৪.১ সর্টিং (Sorting)
৪.১.১ ইনসার্শন সর্ট (Insertion Sort)
৪.১.২ সিলেকশন সর্ট (Selection Sort)
৪.১.৩ বাবল সর্ট (Bubble Sort)
৪.১.৪ মার্জ সর্ট (Merge Sort)
৪.১.৫ কাউন্টিং সর্ট (Counting Sort)
৪.১.৬ STL এর sort ফাংশন
৪.২ বাইনারি সার্চ (Binary Search)
৪.৩ টারনারি সার্চ(Ternary Search)
৪.৪ ব্যাকট্র্যাকিং (Backtracking)
৪.৪.১ সবরকম বিন্যাস বের করা (Permutation Generation)
৪.৪.২ সবরকম সমাবেশ বের করা (Combination Generation)
৪.৪.৩ Eight Queen সমস্যা
৪.৪.৪ Knapsack সমস্যা
৪.৫ প্রোগ্রামিং সমস্যা
৪.৫.১ অনুশীলনী
অধ্যায় ৫- ডেটা স্ট্রাকচার
৫.১ লিঙ্কড লিস্ট (Linked List)
৫.২ স্ট্যাক (Stack)
৫.২.১ 0-1 ম্যাট্রিক্সে সব 1-ওয়ালা সবচেয়ে বড় আয়তক্ষেত্র
৫.৩ কিউ (Queue)
৫.৪ গ্রাফ (graph) এর উপস্থাপন
৫.৫ ট্রি (Tree)
৫.৬ বাইনারি সার্চ ট্রি (Binary Search Tree - BST)
৫.৭ হীপ (Heap) বা প্রায়োরিটি কিউ (Priority Queue)
৫.৮ ডিসজয়েন্ট সেট ইউনিয়ন (Disjoint set Union)
৫.৯ Square Root segmentation
৫.১০ স্ট্যাটিক (Static) ডেটাতে কুয়েরি
৫.১১ সেগমেন্ট ট্রি (Segment Tree)
৫.১১.১ সেগমেন্ট ট্রি তৈরী করা
৫.১১.২ সেগমেন্ট ট্রি আপডেট করা
৫.১১.৩ সেগমেন্ট ট্রি তে কুয়েরি করা
৫.১১.৪ Lazy without Propagation
৫.১১.৫ Lazy With Propagation
৫.১১.৬ একটি উদাহরণ
৫.১২ বাইনারি ইনডেক্সড ট্রি (Binary Indexed Tree)
৫.১৩ প্রোগ্রামিং সমস্যা
৫.১৩.১ অনুশীলনী
অধ্যায় ৬ - গ্রীডি টেকনিক (Greedy Technique)
৬.১ Fractional Knapsack
৬.২ মিনিমাম স্প্যানিং ট্রি (Minimum Spanning Tree)
৬.২.১ প্রিম এর অ্যালগরিদম (Prim's Algorithm)
৬.২.২ ক্রুসকাল এর অ্যালগরিদম (Kruskal's Algorithm)
৬.৩ ওয়াশিং মেশিন ও ড্রায়ার
৬.৪ হাফম্যান কোডিং (Huffman Coding)
৬.৫ প্রোগ্রামিং সমস্যা
৬.৫.১অনুশীলনী
অধ্যায় ৭ - ডায়নামিক প্রোগ্রামিং (Dynamic Programming)
৭.১ আবারও ফিবোনাচি
৭.২ কয়েন চেঞ্জ (Coin Change)
৭.২.১Variant 1
৭.২.২ Variant 2
৭.২.৩ Variant 3
৭.২.৪ Variant 4
৭.২.৫ Variant 5
৭.৩ ট্রাভেলিং সেলসম্যান সমস্যা (Travelling Salesman Problem)
৭.৪ দীর্ঘতম ক্রমবর্ধমান সাবসিকোয়েন্স (Longest Increasing Subsequence)
৭.৫ দীর্ঘতম সাধারণ সাবসিকোয়েন্স (Longest Common Subsequence)
৭.৬ ম্যাট্রিক্স চেইন মাল্টিপ্লিকেশন (Matrix Chain Multiplication)
৭.৭ অপটিমাল বাইনারি সার্চ ট্রি (Optimal Binary Search Tree)
৭.৮ প্রোগ্রামিং সমস্যা
৭.৮.১ অনুশীলনী
অধ্যায় ৮ - গ্রাফ ৮.১ ব্রেডথ ফার্স্ট সার্চ (Breadth First Search - BFS)
৮.২ ডেপথ ফার্স্ট সার্চ (Depth First Search - DFS)
৮.৩ DFS ও BFS এর কিছু সমস্যা
৮.৩.১ কম্পোনেন্ট (Component) বের করা
৮.৩.২ দুটি নোডের দূরত্ব
৮.৩.৩ তিনটি গ্লাস ও পানি
৮.৩.৪ UVa 10653
৮.৩.৫ UVa 10651
৮.৩.৬ 0 ও 1 মূল্য (cost) এর গ্রাফ
৮.৪ সিঙ্গল সোর্স শর্টেস্ট পাথ (Single Source Shortest Path)
৮.৪.১ ডায়াকস্ট্রা'র অ্যালগরিদম (Dijkstra's Algorithm)
৮.৪.২ বেলম্যান ফোর্ড অ্যালগরিদম (Bellman Ford Algorithm)
৮.৫ অল পেয়ার শর্টেস্ট পাথ (All pair shortest path) বা ফ্লয়েড ওয়ার্শাল অ্যালগরিদম (Floyd Warshall Algorithm)
৮.৬ ডায়াকস্ট্রা, বেলম্যান ফোর্ড, ফ্লয়েড ওয়ার্শাল অ্যালগরিদম কেন সঠিক?
৮.৭ আর্টিকুলেশন ভার্টেক্স (Articulation vertex) বা আর্টিকুলেশন বাহু (Articulation edge)
৮.৮ অয়লার পাথ (Euler path) এবং অয়লার সাইকেল (euler cycle)
৮.৯ টপোলজিক্যাল সর্ট (Topological sort)
৮.১০ স্ট্রংলি কানেক্টেড কম্পোনেন্ট (Strongly Connected Component - SCC)
৮.১১ 2-satisfiability (2-sat)
৮.১২ বাইকানেক্টেড কম্পোনেন্ট (Biconnected component)
৮.১৩ ফ্লো (Flow) সম্পর্কিত অ্যালগরিদম
৮.১৩.১ ম্যাক্সিমাম ফ্লো (Maximum flow)
৮.১৩.২ মিনিমাম কাট (Minimum cut)
৮.১৩.৩ মিনিমাম কস্ট ম্যাক্সিমাম ফ্লো (Minimum cost maximum flow)
৮.১৩.৪ ম্যাক্সিমাম বাইপারটাইট ম্যাচিং (Maximum Bipartite Matching)
৮.১৩.৫ ভার্টেক্স কাভার (Vertex cover) ও ইনডিপেন্ডেন্ট সেট (Independent set)
৮.১৩.৬ ওয়েইটেড ম্যাক্সিমাম বাইপারটাইট ম্যাচিং (Weighted maximum bipartite matching)
৮.১৪ প্রোগ্রামিং সমস্যা
৮.১৪.১ অনুশীলনী
অধ্যায় ৯ - কিছু অ্যাডহক পদ্ধতি (Adhoc Technique)
৯.১ কিউমিউলেটিভ যোগফল পদ্ধতি (Cumulative sum technique)
৯.২ সর্বোচ্চ যোগফল পদ্ধতি (Maximum sum technique)
৯.২.১ একমাত্রিক সর্বোচ্চ যোগফল সমস্যা (One dimensional Maximum sum problem)
৯.২.২ দ্বিমাত্রিক সর্বোচ্চ যোগফল সমস্যা (Two dimensional Maximum sum problem)
৯.৩ প্যাটার্ন (Pattern) খোঁজা
৯.৩.১ LightOJ 1008
৯.৩.২ জোসেফাস সমস্যা (Josephus Problem)
৯.৪ একটি নির্দিষ্ট সীমায় সর্বোচ্চ উপাদান
৯.৪.১ একমাত্রিক (One Dimensional বা 1D)
৯.৪.২ দ্বিমাত্রিক (Two Dimensional বা 2D)
৯.৫ লীস্ট কমন অ্যানসেস্টর (Least Common Ancestor)
৯.৬ প্রোগ্রামিং সমস্যা
৯.৬.১ অনুশীলনী
অধ্যায় ১০ - জ্যামিতি (Geoemetry) এবং কম্পিউটেশনাল জ্যামিতি (Computational Geometry) ১০.১ মৌলিক জ্যামিতি ও ত্রিকোণমিতি
১০.২ স্থানাঙ্কভিত্তিক জ্যামিতি (Coordinate Geometry) এবং ভেক্টর (Vector)
১০.৩ কিছু কম্পিউটেশনাল জ্যামিতির অ্যালগরিদম
১০.৩.১ কনভেক্স হাল (Convex Hull)
১০.৩.২ নিকটতম বিন্দুজোড় (Closest pair of points)
১০.৩.৩ পরস্পরচ্ছেদী রেখাংশ (Line segment intersection)
১০.৩.৪ পিকের থেওরেম (Pick's theorem)
১০.৩.৫ বহুভুজ সম্পর্কিত টুকিটাকি
১০.৩.৬ লাইন সুইপ (Line sweep) এবং রোটেটিং ক্যালিপার্স (Rotating Calipers)
১০.৩.৭ কিছু স্থানাঙ্ক সম্পর্কিত গণনা
১০.৪ প্রোগ্রামিং সমস্যা
১০.৪.১ অনুশীলনী
অধ্যায় ১১ - স্ট্রিং (String) সম্পর্কিত ডেটা স্ট্রাকচার ও অ্যালগরিদম
১১.১ হ্যাশিং (Hashing)
১১.২ নুথ-মরিস-প্র্যাট (Knuth-Morris-Pratt) বা KMP অ্যালগরিদম
১১.২.১ KMP সম্পর্কিত কিছু সমস্যা
১১.৩ Z অ্যালগরিদম
১১.৩.১ Z অ্যালগরিদম সম্পর্কিত কিছু সমস্যা
১১.৪ ট্রাই (Trie)
১১.৫ আহো-কোরাসিক অ্যালগরিদম (Aho-corasick Algorithm)
১১.৬ সাফিক্স অ্যারে (Suffix Array)
১১.৬.১ সাফিক্স অ্যারে সম্পর্কিত কিছু সমস্যা
১১.৭ প্রোগ্রামিং সমস্যা
১১.৭.১ অনুশীলনী

Author Information

১৯৮২ সালের ৭ নভেম্বর ময়মনসিংহে জন্ম নেওয়া তামিম শাহরিয়ার সুবিন পেশায় একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। তার শিক্ষাজীবন শুরু হয় হোমনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। অতঃপর এ কে উচ্চ বিদ্যালয় ও নটরডেম কলেজে পড়া শেষে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে পড়াশোনে শেষ করেন। সরকারি কর্মকর্তার ঘরে জন্ম নেওয়া সুবিনের প্রধান আকর্ষণ প্রোগ্রামিংকে ঘিরে। তিনি প্রোগ্রামিং বিষয়ক প্রায় পাঁচশোটি সমস্যা বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকাকালে সমাধান করেছেন। নানা ভাষায় কোডিং করতে পারলেও তার পছন্দের প্রোগ্রামিং ভাষা পাইথন। তবে তার শখ লেখালিখি এবং ভ্রমণ। শখ এবং আগ্রহের বস্তুকে এক বিন্দুতে মিলিয়ে সুবিন লিখে ফেলেছেন বেশ কয়েকটি বই। তামিম শাহরিয়ার সুবিন এর বই সমূহ’র বিষয়বস্তু হলো কম্পিউটার প্রোগ্রামিং, যার বেশিরভাগ বাংলা ভাষায় লিখিত। কীভাবে বাংলা ভাষাভাষী মানুষের কম্পিউটার প্রোগ্রামিং বিষয়ে জড়তা দূর করা যায় সে ভাবনা থেকেই তিনি বাংলায় প্রোগ্রামিং বিষয়ক বই লেখা শুরু করেন। সহজ, সাবলীল ভাষায় লেখা বলে তামিম শাহরিয়ার সুবিন এর বই পাঠকের আত্মস্থ করতে বেগ পেতে হয় না। তামীম শাহরিয়ার সুবিন এর বই সমগ্র এর মাঝে তাই দেখতে পাওয়া যায় প্রোগ্রামিং গাইডলাইন, পাইথন দিয়ে প্রোগ্রামিং ও গণিতের মতো খটমটে বিষয়ের উপস্থিতি। তিনি বাংলাদেশে থাকাকালে মুক্ত সফটওয়্যার লিমিটেড ও দ্বিমিক কম্পিউটিং নামক দুটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াডের একজন একাডেমিক কাউন্সিলর হিসেবেও নিয়োজিত রয়েছেন। বর্তমানে তিনি সপরিবারে সিঙ্গাপুরে বসবাস করছেন।

প্রোগ্রামিং গাইডলাইনঃ যে বইগুলো দিয়ে শুরু করতে পারেন

প্রোগ্রামিং গাইডলাইনঃ যে বইগুলো দিয়ে শুরু করতে পারেন

৪টি বইয়ের রকমারি কালেকশন

Sponsored Products Related To This Item

Readers also bought

Reviews and Ratings

4.0

7 Ratings and 1 Review

Product Q/A

Have a question regarding the product? Ask Us

Show more Question(s)

Recently Sold Products