book_image

মুগ্ধতায় গাজালি: চিরন্তন কথার ভাঁজে সমকালের ভাবনা

by মুস্তাফা আবু সাওয়ি

Price: TK. 134

TK. 168 (You can Save TK. 34)
মুগ্ধতায় গাজালি: চিরন্তন কথার ভাঁজে সমকালের ভাবনা

মুগ্ধতায় গাজালি: চিরন্তন কথার ভাঁজে সমকালের ভাবনা

3 Ratings / 2 Reviews

TK. 134 TK. 168 (You can Save 20%)

tag_icon

পয়েন্ট জমান, ক্যাশ করুন, পছন্দের পণ্য কিনুন। বিস্তারিত

tag_icon

অনলাইনে পেমেন্ট বিকাশ করলেই ১০% ইন্সট্যান্ট ক্যাশব্যাক। (শর্ত প্রযোজ্য)

Product Specification & Summary

‘মুগ্ধতায় গাযালি : চিরন্তন কথার ভাঁজে সময়ের ভাবনা’ বই থেকে:
“কত শত রাত ঘুম বাদ দিয়ে পড়াশোনায় ডুবে ছিলে৷ কত শত রাত তোমার জেগে জেগে কেটেছে বইয়ের পাতায় মুখ গুঁজে৷ বলতে পারব না কী নিয়তে করেছিলে এসব৷ দুনিয়াবি স্বার্থ, এর অসারতা, বিশেষ কোনো পদ বাগানো, কিংবা সতীর্থদের মাঝে দেমাগ দেখানোর জন্য যদি করে থাকো, তা হলে তুমি এক হতভাগা৷ আবারও বলছি, তুমি এক হতভাগা৷
“কিন্তু যদি নবিজির—তাঁর প্রতি আল্লাহর দয়া ও শান্তি বর্ষিত হোক—পবিত্র বিধিকে সমুজ্জ্বল করতে, নিজের চরিত্র শুদ্ধ করতে, পাপাচারী মনকে দমাতে এসব করে থাকো, তা হলে তুমি সত্যিই সৌভাগ্যবান৷ আবারও বলছি, তুমি সত্যিই সৌভাগ্যবান৷”
⋯ একবার ইমাম গাযালির এক ছাত্র চিঠি লিখেছিলেন তাঁর কাছে৷ জানতে চেয়েছিলেন, পরজীবনের জন্য কোন ধরনের জ্ঞান কল্যাণময়৷ সন্দেহ নেই, ছাত্রটি বহু দিন ধরে জ্ঞানচর্চা করছিলেন; তবে উস্তাযের কাছে আরও কিছু সদুপদেশ পেতে চিঠি লিখে জানতে চেয়েছিলেন৷
ইমাম গাযালির প্রতিটি বই-ই অসাধারণ সব রত্নভাণ্ডারে ঋদ্ধ৷ উপরে যে-কথাগুলো তুলে দিলাম, সেগুলো তিনি বলেছিলেন আয়্যুহাল-ওয়ালাদ বইতে৷
অন্তরগুরু গাযালি যে-পরামর্শ এখানে দিয়েছেন, তা শুধু জ্ঞানচর্চা নয়; আমাদের প্রতিটি কাজের বেলায় খাটে৷ যেকোনো কাজ—তা যদি আমরা আল্লাহকে খুশি করার জন্য করি, তা পুরস্কারের নিমিত্ত৷ অন্যদিকে যদি দুনিয়াবি কোনো স্বার্থে করি, তার ফলাফল কেবল এখানেই৷ আর কাজটি যদি খারাপ কিছু হয়, তা হলে এর পরিণাম ভোগ করতে হতে পারে পরজীবনেও৷ মানুষের জীবনে এরচে বড় বিপদ আর কিছু হতে পারে না!
নাম কামানো, মানুষের মাঝে অবস্থান তৈরি কিংবা সম্পদের স্তূপ গড়ার খায়েশ আমাদের অন্তরের জন্য বড়ই হানিকর৷ কিন্তু কালের পর কাল এ-ই করে আসছে মানুষ৷
ইসলাম বৈধভাবে সম্পদ অর্জনে বাধা দেয় না৷ অপচয় বা কিপটেমি না করে যথাযথ খাতে প্রয়োজনে ব্যয় করার অনুমোদন আছে এখানে৷ বৈধ সম্পদ বৈধভাবে ব্যয় করা ব্যক্তির নিজের জন্য যেমন কল্যাণের, গোটা সমাজের জন্যও৷ হাতে পয়সা থাকলে যেকোনো সামাজিক দায়িত্ব পালন করা যায় সহজে৷ আমাদের তৃতীয় ন্যায়পর খলীফা উসমান বিন আফ্‌ফান কিংবা আবদুর-রাহমানের মতো বেশ কিছু সাহাবি ছিলেন ধনী৷ জনকল্যাণে তারা প্রচুর টাকাপয়সা দান করেছেন৷
কখনো সমাজ সেবা করে, বৈজ্ঞানিক অগ্রগতিতে অবদান রেখে কিংবা মানবকল্যাণ করে মানুষ খ্যাতি অর্জন করে ফেলে৷ এ তো অবশ্যই দোষের কিছু না৷ সমাজের মানুষ যদি সবাই মিলে সবার জন্য কাজ না করেন, তা হলে সে-সমাজ এগোবে কীভাবে? নিরক্ষরতা দূর করা, বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা, পয়নিষ্কাশন, রোগ-প্রতিরোধ, দারিদ্র্য দূরীকরণ-সহ যেকোনো ভালো ভালো কাজে তো মুসলিমদেরই এগিয়ে আসা উচিত সবার আগে৷
তবে কথা কী, খ্যাতির হাত ধরেই খুলে যায় বেশ কিছু অন্যায়ের রাস্তা৷ এসব ব্যাপারে আমাদের হুঁশিয়ার থাকা উচিত৷ কেউ কেউ গুরুত্বপূর্ণ কোনো দায়িত্বে কাজ করতে গিয়ে নিজেকে কিছু একটা ভেবে বসতে পারেন৷ এমনটা ভাবা বোকামি হবে৷ দেখুন, জনসাধারণের সঙ্গে আমাদের সম্বন্ধটা উপর তলার নিচ তলার নয়; পাশাপাশি৷ কাজেই তাদেরকে নীচু চোখে দেখবেন না৷
কোনো কাজের যোগ্য না হয়েও কেউ যদি পেছনের দরজা দিয়ে চাকরি বাগিয়ে নেন, নিসন্দেহে চরম অন্যায় হবে সেটা৷ ক্ষমতার ক্ষুধায় কোনো বিশেষ পদ পেতে কেউ যদি অবৈধ রাস্তায় হাঁটেন, অন্যের ক্ষতি করেন, এর পরিণাম হবে খুবই ভয়াবহ৷ আর এর রেশ শুধু দুনিয়াতে নয়; থাকবে পরজীবনেও৷

Title মুগ্ধতায় গাজালি: চিরন্তন কথার ভাঁজে সমকালের ভাবনা
Author
Translator
Publisher
Edition 1st Published, 2019
Country বাংলাদেশ
Language বাংলা

Customers who bought this product also bought

Reviews and Ratings

Submit Review-Rating and Earn 30 points (minimum 40 words)

5.0

3 Ratings and 2 Reviews

Recently Sold Products

call center

Help: 16297 / 01519521971 24 Hours a Day, 7 Days a Week

Pay cash on delivery

Pay cash on delivery Pay cash at your doorstep

All over Bangladesh

Service All over Bangladesh

Happy Return

Happy Return All over Bangladesh